banner

ফ্ল্যাটের স্বপ্নপূরণে এক অঙ্কের সুদ (প্রথম আলো)

NewsWorld365 NewsWorld365 , May 8, 2016

সানাউল্লাহ সাকিব :

নিজের একটি ফ্ল্যাট কে না চান। আবার পুরোনো বাড়ি সংস্কার বা পরিবর্ধনও করতে চান অনেকে। তা হলে আপনার জন্যই এক অঙ্কের সুদ নিয়ে অপেক্ষা করছে কয়েকটি ব্যাংক। আবেদন করে সহজ শর্তে আপনি পেতে পারেন ১ কোটি ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ। পাশাপাশি মিলছে ২৫ বছর পর্যন্ত ঋণ পরিশোধের সুযোগ। এই ঋণেই একটি স্বপ্নের ফ্ল্যাটের মালিক হতে পারেন আপনি।

ব্যাংকগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্তমানে আইএফআইসি, ব্র্যাক, ইস্টার্ন, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড, আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসিসহ আরও কয়েকটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এক অঙ্কের সুদে গৃহঋণ বা হোম লোন দিচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ২০১৫ সালের পয়লা জানুয়ারি গৃহায়ণ খাতে ঋণের সীমা গ্রাহকপ্রতি বাড়িয়ে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা করা হয়; আগে যা ছিল ১ কোটি টাকা। এ ছাড়া ঋণ ও মূলধন অনুপাত ৭০: ৩০ করা হয়। অর্থাৎ ১ কোটি টাকার ফ্ল্যাটে ব্যাংক ৭০ লাখ টাকা পর্যন্ত অর্থায়ন করতে পারবে। বাকি ৩০ লাখ টাকা জোগান দিতে হবে গ্রাহককে। তবে একজন গ্রাহককে কোনোভাবেই ১ কোটি ২০ লাখ টাকার বেশি ঋণ দিতে পারবে না ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের এই নির্দেশনার পরই মূলত ব্যাংকগুলো গৃহঋণ নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করে।

ব্যাংকগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্যাংকগুলো অনেক আগে থেকেই গৃহঋণ দিয়ে এলেও ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে আইএফআইসি ব্যাংক প্রথম কম সুদে এই ঋণ নিয়ে আসে। ব্যাংকটি সে সময়ে ১১ দশমিক ৯৫ শতাংশ সুদে গৃহঋণ দেওয়া শুরু করে; যে সময়ে অন্য ব্যাংকগুলোতে সুদের হার ছিল ১৫ শতাংশের বেশি। পরে একই বছরের আগস্টে ১১ দশমিক ৭৫ শতাংশ ও ডিসেম্বরে সুদহার কমিয়ে ৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ করে ব্যাংকটি।

ব্যাংকটি গত মার্চ পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ১০০ গ্রাহককে গৃহঋণ দিয়েছে। এ খাতে ঋণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০০ কোটি টাকা। ঋণের সুবিধাভোগীদের মধ্যে বড় অংশই বাড়ির মালিক ও চাকরিজীবী। এ ছাড়া কিছু ব্যবসায়ীও এই ঋণ নিয়েছেন।

আইএফআইসি ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, ব্যাংকটির ঋণের ৪০ শতাংশ গেছে রাজধানীর বাইরে। ৬০ শতাংশ গেছে রাজধানী ও আশপাশে। শুধু বরিশাল অঞ্চলের ৫০ গ্রাহক ১৮ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছেন।

যোগাযোগ করা হলে আইএফআইসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ আলম সারওয়ার প্রথম আলোকে বলেন, ‘সুদের হারের কারণে গ্রাহকেরা ফ্ল্যাট কেনার চিন্তাই করতেন না। ব্যাংক হিসেবে আমাদেরও দায়িত্ব ছিল গ্রাহককে এ বিষয়ে সহায়তা করার। আকর্ষণীয় সুদের হার দিয়ে সেবা চালুর পরই আমরা ভালো সাড়া পাচ্ছি। আমাদের পর অন্য ব্যাংকগুলোও একই সেবায় গেছে। এতে গ্রাহকদের এখন নিজের একটি ফ্ল্যাট কেনার স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে।’

জানা যায়, কেউ অন্য ব্যাংক থেকে ঋণ টেকওভার করলে আইএফআইসি ব্যাংক তাঁকে ৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ সুদে ঋণ দিচ্ছে। এ ছাড়া বাড়তি ঋণের ক্ষেত্রেও একই সুদ। এতে কোনো প্রসেসিং মাশুলও নেই। তবে নতুন ঋণের ক্ষেত্রে ১ শতাংশ প্রসেসিং মাশুল ও সুদের হার ১১ দশমিক ৪৫ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে। গ্রাহকভেদে কম সুদেও ঋণ মিলতে পারে। নতুন ঋণে ছয় মাস অতিরিক্ত সময়ও মিলবে ঋণ পরিশোধে। একই সুবিধা মিলছে অন্য ব্যাংকগুলোতেও। তবে গ্রাহকভেদে সুদের হারের ভিন্নতা হতে পারে।

ব্যাংকগুলো সূত্রে জানা গেছে, শুধু গত মার্চ মাসেই আইএফআইসি ব্যাংক ৮৫ কোটি টাকা, ইস্টার্ন ব্যাংক প্রায় ৪০ কোটি টাকা ও ব্র্যাক ব্যাংক ৮০ কোটি টাকা গৃহঋণ দিয়েছে। ব্র্যাক ব্যাংক এ খাতে এখন পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে।

সম্প্রতি ইস্টার্ন ব্যাংকের মতিঝিল শাখায় কথা হয় সরকারি কর্মকর্তা আশিকুর রহমানের সঙ্গে। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘চাকরির শেষ সময়ে একটা ফ্ল্যাট কিনতে চাই। এ জন্য ব্যাংকঋণের খোঁজে এসেছি। বেশি সুদ হওয়ায় আগে ঋণ নেওয়ার সাহস করিনি। এখন যেহেতু ফ্ল্যাটের দাম কম, সুদও কমেছে, তাই কিনে ফেলব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


+ 9 = twelve

নিউজওয়ার্ল্ড৩৬৫ তথ্যসমগ্র

প্রধান সম্পাদক: জগলুল আলম ফোন: ৪১০-৩৩০-১৪৩১
সম্পাদক: আহমেদ মূসা ইমেইল: editor@newsworld365.com
বার্তা সম্পাদক: কৃষ্ণ কুমার শর্মা ইমেইল: newsed@newsworld365.com
ঢাকা অফিস: ০১৭১৯৪০০৯৯২
ইমেইল: nworld365@gmail.com
বিজনেস এক্সিকিউটিভ: সঞ্জিত ঘোষ ইমেইল: accounts@newsworld365.com
জনসংযোগ: আলী আকবর ইমেইল: news@newsworld365.com
ইমিগ্রেশন সংক্রান্ত তথ্য: nworld365@gmail.com
অফিস: ৩৩-২৯ স্ট্রিট-১৩ , লং আইল্যান্ড সিটি, এনওয়াই ১১১০৬